করোনার আরেকটি ভ্যাকসিন নোভাভ্যাক্স

764
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক কোম্পানি নোভাভ্যাক্সের উদ্ভাবিত করোনার ভ্যাকসিন ৮৯ দশমিক ৩ শতাংশ কার্যকরী বলে প্রমাণিত হয়েছে যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ধরণের এক ট্রায়ালে। এমনটাই জানিয়েছে বিবিসি। নোভাভ্যাক্স উদ্ভাবিত এই ভ্যাকসিনটি ব্রিটেনে পাওয়া করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেইনটির বিরুদ্ধেও কার্যকর বলে জানিয়েছেন বিবিসির মেডিকেল এডিটর ফারগুস ওয়ালস। যুক্তরাজ্য এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের তিনটি ভ্যাকসিন জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দিয়েছে। এর মধ্যে একটি অক্সফোর্ড-আস্ট্রাজেনেকা, অপরটি ফাইজার-বায়োএনটেক এবং তৃতীয়টি মর্ডানার টিকা।

যুক্তরাষ্ট্র-ভিত্তিক কোম্পানি নোভাভ্যাক্সের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, যুক্তরাজ্যে তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের পর দেখা গেছে তাদের টিকা ৮৯ দশমিক ৩ শতাংশ কার্যকর। এই ট্রায়ালে ১৮ থেকে ৮৪ বছর বয়সী ১৫ হাজার মানুষ অংশ নেয়, যাদের ২৭ শতাংশ মানুষের বয়স ছিল ৬৫ বছরের বেশি।

দক্ষিণ আফ্রিকাতে বেশিরভাগ মানুষ করোনাভাইরাসের একটি নতুন ধরণে আক্রান্ত। সেখানে চালানো ট্রায়ালে দেখা গেছে, যাদের এইচআইভি নেই তাদের ক্ষেত্রে এটি ৬০ শতাংশ কার্যকর হয়েছে। নোভাভ্যাক্স-এর প্রধান নির্বাহী স্ট্যান অ্যার্ক বলেছেন যে যুক্তরাজ্যে ট্রায়ালের ফলাফল ‘চমৎকার’ এবং ‘ততটাই ভালো যতটা আমরা আশা করেছিলাম’।

এরই মধ্যে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এই ‘সুখবরকে’ স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, যুক্তরাজ্যের ওষুধ নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ এখন এই ভ্যাকসিন পরীক্ষা করে দেখবে।যুক্তরাজ্য এরই মধ্যে এই ভ্যাকসিনের ছয় কোটি ডোজ কেনার জন্য আদেশ দিয়েছে। সরকার বলছে, যুক্তরাজ্যের মেডিসিন অ্যান্ড হেলথ কেয়ার প্রোডাক্টস রেগুলেটরি এজেন্সির অনুমোদন পেলে চলতি বছরের মাঝামাঝি সময় থেকেই এই ভ্যাকসিনের প্রয়োগ শুরু করবে দেশটি

শেয়ার করতে ক্লিক করুন