ইসলামী সঙ্গীতের পরিচিতমুখ শিল্পী তাওহিদ জামিল

1058
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক : ইসলামিক সঙ্গীতের পরিচিত মুখ বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় কিশোরশিল্পী তাওহিদ জামিল। নিজের লেখা এবং সুর করা বেশ কয়েকটি গান গেয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছেছেন। কোটি দর্শক শ্রোতা এখন তার নিয়মিত দর্শক। বর্তমানে কাজ করছেন দেশের জনপ্রিয় ইসলামিক সাংস্কৃতিক সংগঠন কলরবে।

১ফেব্রুয়ারি ১৯৯৭ সালে এই তরুন প্রতিভাবান কিশোরশিল্পী ঢাকার পার্শ্ববর্তী নরসিংদী জেলার শিবপুরের ভরতের কান্দী গ্রামে জন্ম নেয়।
শৈশব থেকেই বিভিন্ন ইসলামিক অনুষ্ঠানে নাশীদ গেয়ে মুগ্ধ কর‍ত দর্শক শ্রোতাদের। বিভিন্ন ইসলামি অনুষ্ঠানের মঞ্চে ইসলামি সংগীত গাইতেন।তন্ময় হয়ে উপভোগ করত দর্শক শ্রোতারা।

যেভাবে সঙ্গীতে জগতে পদার্পনঃ-

শিল্পী তাওহিদ জামিলের সংগীত জগতের হাতেখড়ি বড় বোনের মাধ্যমে হলেও পরবর্তীতে তার প্রতিভার বিকাশ ঘটে কলরবে এসে।২০১০ সালে নরসিংদী জেলায় জাতীয় শিশু কিশোর সাংস্কৃতিক সংগঠন কলরবের জেলা পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে নিজের নাম উজ্জ্বল করেন তিনি। সে সময় কলরবের প্রাধান বাংলাদেশের সংগীত জগতের কিংবদন্তি মরহুম আইনুদ্দিন আল আজাদ রহ. তাকে পছন্দ তাকে কলরবে নিয়ে এসে ভর্তি করেন। এর মাঝে পাঁচ বছর পড়াশোনায় নিমগ্ন থাকলেও ভুলে যাননি সংগীত চর্চা। উস্তাদগন বলতেন পড়াশোনায় ভালো করার জন্য৷ তাই তিনি পড়াশোনায় বেশি মনোযোগী ছিলেন। পড়াশোনার ফাঁকে ফাঁকে সংগীত চর্চা ও মাঝে মাঝে সুর করতেও চেষ্টা চালিয়ে যেতেন।

২০১৭ সালে তার নিজের লেখা ও সুর করা প্রথম রিলিজ হয় ‘মাদিনা’ নামক ইসলামি সংগীত। যা দর্শক শ্রোতাদের মুগ্ধ করে।
এর পর ২০১৮ সালে দেশের সেরা ইসলামিক ইটিউব চ্যানেল হলি টিউনে প্রকাশিত হয় তার নিজের লেখা ও সুর করা সংগীত ‘হৃদয় মাঝে মালা গাঁথি’। যা দেড় কোটি দর্শকদের হৃদয়ে স্থান করে নেয়। এভাবেই তার একেকটি সংগীত দেশের কোটি মানুষের হৃদয় ছোঁয়ে দেয়।

এ পর্যন্ত তাঁর নিজের লেখা ও সুর করা প্রকাশিত
সংগীত হলোঃ-
আমার সংগীত গুলো
হৃদয় মাঝে মালা গাঁথিমাদীনা,শুধুই তুমি,
হৃদয়ের পাতায় তোমারি ছবি,মুহাম্মদ রাসূল ইত্যাদি।

এ ছাড়াও তিনি
লক্ষ তারার মাঝে তুমি, ভবের খেলা,পাপ দরিয়া,ত্বলা আল বাদরু আলাইনা,যিকির,
হাসবি রব্বি জাল্লাল্লাহ সংগীতগুলো গেয়েছেন।

বাংলা সংগীতের পাশাপাশি শিল্পী তাওহিদ জামিল আরবি উর্দু ও ইংরেজি সংগীত গেয়েও বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

সংগীত নিয়ে কাজ করার উদ্দেশ্য সম্পর্কে তিনি যা বলনেনঃ-

জানতে চাইলে কণ্ঠশিল্পী তাওহিদ জামিল বলেন;আমি মনে করি ইসলামী সংগীত ইসলামী সাংস্কৃতিক বিপ্লবের একটি অংশ হিসেবে কাজ করে। মানুষ বিনোদনের নামে বেহায়াপনা দেখে থাকে। নোংরা সংস্কৃতির মোহে পড়ে যায়। আমি আশাবাদী আগামী দিনে মুসলিম উম্মাহ যেন গান ছেড়ে আমাদের সুস্থ সুন্দর ও হালাল বিনোদন গ্রহণ করবে। ইসলামী সংস্কৃতি ছড়িয়ে পড়ুক প্রতিটি মানুষের কাছে এটাই আমার প্রত্যাশা।

শিল্পী তাওহিদ জামিল বর্তমানে ইসলামী সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সুপরিচিত একটি নাম। তার সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি দেশের স্বনামধন্য দুটি মাদরাসায় পড়াশোনা শেষ করে বর্তমানে তিনি ইসলামিক সংগীত নিয়ে কাজ করছেন দশ ও দেশের কল্যাণের জন্য।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন