ইভ্যালি‘র কার্যালয় বন্ধের অভিযোগ, হটলাইনেও সাড়া নেই

1022
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

ইভ্যালি’র সংগে পণ্য সরবরাহকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান (মার্চেন্ট) সম্পর্ক ছিন্ন করছে। গত দুই দিনে এসব প্রতিষ্ঠান তাদের গ্রাহকদের জানিয়েছে, ইভ্যালি’র দেওয়া ভাউচারে আর পণ্য সরবরাহ করা হবে না। অভিযোগ রয়েছে, ইভ্যালি’র কাছ থেকে পণ্যের দাম পাওয়া যাচ্ছে না।

পোশাকের ব্র্যান্ড জেন্টল পার্ক, ট্রেন্ডস, আর্টিসানসহ আরও বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি’র ভাউচারে পণ্য সরবরাহ না করার কথা জানিয়েছে। পণ্য সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো বকেয়া টাকার জন্য ইভ্যালি’র কার্যালয়ে ভীড় করছেন। পণ্য ও অর্থ ফেরত না পাওয়া গ্রাহকরাও ইভ্যালি’র কার্যালয়ে যাচ্ছেন। তবে অভিযোগ উঠেছে, ইভ্যালি’র কার্যালয় বন্ধ রয়েছে। এমনকি হটলাইন নম্বরেও যোগাযোগ করে সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না।

জানা গেছে, ইভ্যালিসহ ১৪টি ই–কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করছে সিআইডি। এর মধ্যে ধামাকা নামের একটি ই–কমার্স প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাব জব্দের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংককে চিঠি দিয়েছে সংস্থাটি। পর্যায়ক্রমে অন্য প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

অভিযোগ রয়েছে, রাজধানীর ধানমন্ডির সোবহানবাগ এলাকায় অবস্থিত ইভ্যালি’র কার্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, কার্যালয়টি বন্ধ। কার্যালয়ের সামনে নোটিশ ঝুলছে। অবশ্য নোটিশে কোনো স্বাক্ষর বা তারিখ উল্লেখ করা নেই। নোটিশে বলা হয়েছে, ইভ্যালি’র সশরীর গ্রাহকসেবা প্রদান বন্ধ থাকবে। অনলাইন গ্রাহকসেবা ও পণ্য সরবরাহ চালু থাকবে।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন