হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব

1252
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের উপকমিটির সদস্য পদ হারানো এফবিসিসিআইর পরিচালক হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাড়িতে প্রায় তিন ঘণ্টা অভিযানের পর তাকে গ্রেপ্তারের কথা জানিয়েছে র‌্যাব। গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‍্যাব সদর দপ্তরে নেয়া হয়েছে তাকে।

এর আগে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার রাত পৌনে নয়টার দিকে তার গুলশানের বাসায় আকস্মিক অভিযান চালায় র‍্যাব।

৩ ঘণ্টার এই অভিযানে তার বাসা থেকে উদ্ধার করা হয় বিপুল অবৈধ মাদক, হরিণের চামড়া ও ওয়াকিটকি। অভিযানে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র পাওয়া গেছে। তবে সেগুলোর বৈধ কাগজ রয়েছে বলে র‍্যাবের কাছে দাবি করেছেন হেলেনা জাহাঙ্গীর।

অভিযান শেষে সাক্ষাৎকার দেন হেলেনা জাহাঙ্গীরের মেয়ে জেসি আলম।
জেসি আলম জানান, কয়েক মাস আগে আমার মায়ের অপারেশন হয়েছে। ঘুমানোর জন্য তাকে নিয়মিত ঔষধ নিতে হয়। এমন অবস্থায় যদি এসব কাহিনী করা হয় তাহলে একজন মানুষের মন-মানসিকতা ঠিক থাকবে না।

তিনি আরও জানান, র‍্যাবের অভিযান পরিচালনার জন্য কোনো ওয়ারেন্ট ছিল না। তারা আমাদের সাথে সহযোগিতা করতে পারতো। তা না করে তারা উল্টো আমাদেরকে দমিয়ে রেখেছে।

এছাড়াও, অভিযান চলাকালে র‍্যাবের এক কর্মকর্তা তাদের সাথে বাজে আচরণ করেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তবে সেই র‍্যাব কর্মকর্তার পরিচয় সম্পর্কে কিছু বলতে পারেননি।

মাঝরাতে অভিযান শেষে এখন হেলেনা জাহাঙ্গীরকে র‍্যাবের জিম্মায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাকে আটকের পর র‍্যাবের তরফ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে তেমন কিছুই জানানো হয়নি। পরবর্তীতে এ বিষয়ে ব্রিফ করা হবে বলে জানান উপস্থিত কর্মকর্তারা।

মিরপুরে হেলেনা জাহাঙ্গীরের জয়যাত্রা টেলিভিশনেও অভিযানে চালায় র‍্যাব। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত ওই ভবনে অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকেও বেশকিছু অবৈধ সরঞ্জাম উদ্ধার করে তারা।

সম্প্রতি ফেসবুকে ‘বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ নামের একটি সংগঠনের সভাপতি হিসেবে হেলেনা জাহাঙ্গীরের নাম আসায় তাকে আওয়ামী লীগের উপকমিটি ও কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন