ইসলামিক সরকার গঠনে তোড়জোড় তালেবানের

1442
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

আফগানিস্তানের সব শ্রেণীর মানুষকে নিয়েই ইসলামিক সরকার গঠনের কাজ চলছে বলে জানিয়েছে তালেবান। গোষ্ঠীটির মুখপাত্র সুহাইল শাহীন জানান, নতুন সংবিধান প্রণয়নের পরিকল্পনা চলছে। তালেবানের এ অবস্থানকে স্বাগত জানিয়েছেন রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ।

তালেবানের হাতে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ যাওয়ার পর থেকেই দেশজুড়ে বিরাজ করছে আতঙ্ক আর নানা শঙ্কা। তালেবানের কোন আশ্বাসেই বিশ্বাস করছে না সাধারণ মানুষ। যদিও তালেবান মুখপাত্রের দাবি, কাবুলে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরছে।

চীনা সংবাদ মাধ্যম সিজিটিএনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তালেবান মুখপাত্র সুহাইল শাহীন জানান, সবাইকে সাথে নিয়েই আফগানিস্তানের নতুন সরকার গঠন করতে চান তারা। প্রতিষ্ঠা করা হবে ইসলামিক শাসন ব্যবস্থা।

সুহাইল শাহীন বলেন, “আফগানিস্তানে এই মুহুর্তে রাজনৈতিক শূন্যতা বিরাজ করছে। দেশটিতে কোন সংবিধান না থাকায় এখনই নির্বাচন আয়োজনের কোন সুযোগ নেই। আমাদের সামনে নতুন সংবিধান প্রণয়নসহ অনেক কাজ। তার আগে, সবার অংশগ্রহণে আলোচনার ভিত্তিতে ইসলামিক সরকার গঠন করতে চাই আমরা”।

শাহীন আরো জানান, “দীর্ঘ দুই দশকের যুদ্ধে প্রায় নিঃস্ব আফগানিস্তান। তাই, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, অবকাঠামো খাতে সহায়তার জন্য আমি বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। আমাদের প্রাকৃতিক সম্পদ কাজে লাগিয়ে বিনিয়োগ করলে তারাও লাভবান হবেন”।

এদিকে, আফগানিস্তান থেকে এ পর্যন্ত বিভিন্ন দেশের ১৮ হাজার মানুষকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ন্যাটো। পরিস্থিতি বিবেচনায় উদ্ধারকাজের গতি বাড়ানোর ঘোষণা তাদের।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন