অনিশ্চয়তায় অস্ট্রেলিয়ার পাকিস্তান সফরও

1005
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

নিরাপত্তা শঙ্কায় সদ্য পাকিস্তান সফর বাতিল করেছে নিউজিল্যান্ড। এরপর গভীর সংকটে পড়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট। দেশটি সফর নিয়ে নতুন করে ভাবার কথা জানিয়েছে ইংল্যান্ড। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে অস্ট্রেলিয়াও।

১৬ বছর পর আগামী মাসে পাকিস্তানে সীমিত ওভারের সিরিজ খেলার কথা ইংলিশদের। একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবর, এ নিয়ে ১০বার ভাবছে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। স্বভাবতই সিরিজটি হয় কি না, তা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

এছাড়া আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি-মার্চে পাকিস্তানের অস্ট্রেলিয়া সফর নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে। অজি ক্রিকেট বোর্ড (সিএ) জানিয়েছে, তারা সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করছে। শোনা যাচ্ছে, নিরাপত্তা অযুহাতে পাকিস্তান সফর স্থগিত করতে পারে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। এ নিয়ে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করছে তারা। আর একধাপ এগিয়ে ক্রীড়া লেখক ওসমান সামিউদ্দীন বলেছেন, সম্ভবত; অস্ট্রেলীয় দল আসছে না।

১৯৯৮ সালের পর পাকিস্তান সফর করেনি অস্ট্রেলিয়া। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার (আইসিসি) ভবিষ্যৎ সূচি অনুযায়ী (এফটিপি) ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি-মার্চে দেশটিতে যাওয়ার কথা রয়েছে স্মিথ- ওয়ার্নারদের। এ সফরে বাবর-আফ্রিদিদের বিপক্ষে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি এবং দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলার কথা রয়েছে তাদের। তবে নিরাপত্তাজনিত কারণে শঙ্কার মুখে পড়েছে সিরিজটি।

উল্লেখ্য, গত ১৭ সেপ্টেম্বর রাওয়ালপিন্ডিতে প্রথম ওয়ানডে দিয়ে মাঠে গড়ানোর কথা ছিল পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড দ্বিপক্ষীয় সিরিজ। তবে টসের ঠিক আগ মুহূর্তে নিরাপত্তা ইস্যুতে সফর বাতিল করে কিউই ক্রিকেট বোর্ড (এনজেডসি)। সঙ্গত কারণে এরপর থেকে চাপে রয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। ক্রিকেট বিশ্লেষকরা বলছেন, এ ঘটনায় আবার এক দশক দেশটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নাও ফিরতে পারে।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন