মোদির সম্পদের হিসাব-নিকাশ

764
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

বিশ্বের অন্যতম ক্ষমতাধর নেতা নরেন্দ্র মোদি। টানা দুই মেয়াদে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। বর্তমানে নিজ মন্ত্রিসভার ওপর রয়েছে তার একাধিপত্য। স্বভাবতই ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর মোট সম্পদের হিসাব-নিকাশ নিয়ে জল্পনা-কল্পনা তুঙ্গে। সম্প্রতি সেসব তথ্যও সামনে এসেছে।

দেশটির প্রভাবশালী গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এখন প্রধানমন্ত্রী মোট সম্পদ ৩ দশমিক শূন্য ৭ কোটি রুপি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা। ২০২১ সালে তার সবশেষ ঘোষণায় এ তথ্য জানা গেছে। গত বছর মোদির মোট সম্পদ ছিল ২ দশমিক ৮৫ রুপি। সেই হিসাবে এ বছর তার আয় ২২ লাখ রুপি বেড়েছে।

চলতি বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে রয়েছে ১ লাখ ৫২ হাজার ৪৮০ রুপি। হাতে নগদ রয়েছে ৩৬ হাজার ৯০০ রুপি। স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার গান্ধীনর ব্র্যাঞ্চে তার ফিক্সড ডিপোজিটের সুদের হার বেড়েছে। মূলত এ কারণে তার সম্পদের পরিমাণ বেড়েছে। সেই ডিপোজিটেরই পরিমাণ ১ কোটি ৮৩ লাখ রুপি। গত বছর এর পরিমাণ ছিল ১ দশমিক ৬ কোটি রুপি।

প্রধানমন্ত্রী মোদি সাধারণত শেয়ারবাজার বা মিউচাল ফান্ডে কোনও বিনিয়োগ করেন না। যদিও তার ন্যাশনাল সেভিংস সার্টিফিকেটে সঞ্চিত রয়েছে ৮ লাখ ৯৩ হাজার ২৫১ রুপি। লাইফ ইন্স্যুরেন্সে অর্থ আছে ১ লাখ ৫০ হাজার ৯৫৭ রুপি।

২০১২ সালে লার্সেন অ্যান্ড টুবরো ইনফ্রা বন্ডে বিনিয়োগ করেন মোদি। সেখানে তার কিছু অর্থ আছে। হাতে ১ লাখ ৪৮ হাজার ৩৩১ টাকার মূল্যের চারটি সোনার আংটি রয়েছে। ১ দশমিক ১ কোটি রুপির একটি বসতভিটে রয়েছে। তবে এ সম্পত্তির মাত্র ২৫ শতাংশের মালিক তিনি।

২০০২ সালে গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার দুই মাস আগে এটি ১ দশমিক ৩ লাখ রুপিতে কেনেন মোদি। তবে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর কোনো সম্পত্তিতে বিনিয়োগ করেননি তিনি। তার নামে কোনো কোনো ঋণ নেই।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন