নিজেদের শক্তি দেখাতে এক মহা আয়োজন চীনের

772
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

বিশ্বে নিজেদের শক্তির জানান দিতে অত্যাধুনিক সব যুদ্ধবিমান প্রদর্শনের আয়োজন করল চীন। টানা ছয় দিন ধরে চলা ‘ইন্টারন্যাশনাল অ্যাভিয়েশন ও অ্যারোস্পেস এক্সিবিশন’ শীর্ষক এয়ার শোতে প্রথমবারের মতো দেখানো হবে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ড্রোন, বিস্ফোরক ও সামরিক যুদ্ধবিমান।

প্রথম দিনে পঞ্চম প্রজন্মের জে-২০ যুদ্ধবিমান প্রদর্শন ছিল এক্সিবিশনের মূল আকর্ষণ।

মঙ্গলবার অত্যাধুনিক সব যুদ্ধবিমান আকাশে উড়িয়ে সবচেয়ে বড় এয়ার শো’ দেখিয়েছে দেশটি। দক্ষিণাঞ্চলের ঝুহাই শহরে এটি অনুষ্ঠিত হয়। টানা ছয় দিন চলবে ১৩তম ইন্টারন্যাশনাল অ্যাভিয়েশন ও অ্যারোস্পেস এক্সিবিশনটি। প্রদর্শনীর মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী চীনের উচ্চমাত্রার সামরিক শক্তি তুলে ধরা হবে।

প্রথম দিনে চীনের সবচেয়ে আধুনিক পঞ্চম প্রজন্মের জে-২০ যুদ্ধবিমান প্রদর্শন ছিল এক্সিবিশনের মূল আকর্ষণ। ঘণ্টায় দুই হাজার ১০০ কিলোমিটার গতিতে চলতে সক্ষম যুদ্ধবিমানটি। এক সিটের যুদ্ধবিমানটি শক্তিশালী ড্রাগন নামে পরিচিত। এ ছাড়া বর্ণিল রং ছড়িয়ে এতে জে-১০ যুদ্ধবিমান প্রদর্শন করা হয়।

এই প্রদর্শনীতে সম্প্রতি অ্যারোস্পেস কোম্পানির তৈরি ক্যারিয়ার রকেট, স্পেস ক্রাফ্ট এবং অতি উচ্চতায় চলতে পারে এমন অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ড্রোন প্রদর্শন করা হবে। এর মাধ্যমে উন্নতমানের সামরিক সরঞ্জাম তৈরির সক্ষতা দেখাতে চায় দেশটি। এ ছাড়া প্রথমবারের মতো জে-১৬ ডি সামরিক যুদ্ধবিমান ও অত্যাধুনিক বিস্ফোরক এইচ-২০ প্রদর্শন করা হবে।

সামরিক বাহিনীর অংশগ্রহণ ছাড়াও অনেক মানুষ ভিড় করে আয়োজনে।

আয়োজক ও অংশগ্রহণকারীরা বলেন, আমাদের সামরিক বাহিনীর স্বয়ংক্রিয় সব যুদ্ধবিমান ও প্রযুক্তিই প্রমাণ দিচ্ছে চীন বিশ্বের সেরা। সবাই নতুন বিস্ফোরক এইচ-২০ দেখার অপেক্ষায় আছে। এটি দেখার জন্য আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। তবে আজকে জে-২০ যুদ্ধবিমানটিই সবার আকর্ষণ কেড়েছে।

প্রদর্শনীতে বিশ্বের ৪০টি দেশের ৭০০ কোম্পানি অনলাইন ও অফলাইনে অংশ নেবে। গত বছর এয়ার শো’টি হওয়ার কথা ছিল। তবে করোনার কারণে প্রায় এক বছর দেরিতে শুরু হলো এটি।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন