পীরগঞ্জের ঘটনায় পুলিশের দুই মামলা, আটক ৪২

733
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

রংপুরের পীরগঞ্জের মাঝিপাড়ায় হিন্দু পল্লীতে হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৫শ জনকে আসামি করে ২টি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত আটক করা হয়েছে ৪২ জনকে।

রোববার রাত ৯ টার দিকে পীরগঞ্জের মাঝিপাড়ার হিন্দু পল্লীতে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন রংপুরের পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার। এসময় প্রায় ২০ টি ঘরসহ বেশকিছু মালামাল পুড়িয়ে দেয়া হয়।

একটি ফেইসবুক পোস্টকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা তৈরির খবর পেয়ে পুলিশ রাতে মাঝিপাড়ায় হিন্দু সম্প্রদায়ের ওই তরুণের বাড়ির নিরাপত্তায় অবস্থান নেয়। কিন্তু কিছুটা দূরে হিন্দুদের অন্য বাড়িতে আগুন দেওয়া হয়।

সেখানে অন্তত ২০টি বাড়িঘর পুড়েছে বলে পুলিশ ও স্থানীয়রা জানিয়েছে। সবকিছু পুড়ে যাওয়া দেখে আর্তনাদ করে ক্ষতিগ্রস্তরা।

পরে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিটের আধাঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এসময় ঘটনা নিয়ন্ত্রণে ফাঁকা গুলি ও রাবারবুলেট ছোঁড়ে পুলিশ। পরে রাত ১টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

পুরো ঘটনা নিয়ন্ত্রণে সেখানে রাতভর উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তারা। মোতায়েন করা হয় অতিরিক্ত বিজিবি, র‍্যাব ও পুলিশ। এসময়, আটক করা হয় ২০ জনকে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানায় জেলা পুলিশ সুপার।

আর বাড়িতে আগুনের ঘটনায় যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের খাদ্য সহায়তা ও ক্ষতিপূরণের আশ্বাস দিয়েছেন জেলা প্রশাসক আসিব আহসান।

উল্লেখ্য, দুর্গাপূজা চলাকালে কুমিল্লার একটি পূজামণ্ডপে কোরআন অবমাননার কথিত অভিযোগ তুলে শুরু সহিংসতা শুরুর পর গত কয়েকদিনে তা ছড়িয়েছিল চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, কক্সবাজার, ফেনীসহ বিভিন্ন অঞ্চলে। এবার এর রেশ ছড়ালো রংপুরেও।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন