রানার্সআপ হলে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হবে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড!

882
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মাঝপথে হঠাৎ সিদ্ধান্ত বদল করলো আইসিসি। আগে শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের জন্য প্রথম পর্ব উতরে গেলে গ্রুপের শীর্ষ বাছাই নিশ্চিত ছিল। আইসিসি নতুন সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, এখন গ্রুপ রানার্সআপ হলে বাংলাদেশ খেলবে গ্রুপ ওয়ানে, অর্থাৎ ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে। আর গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলেই শুধু আগের মত ‘বি’ গ্রুপের ভারত-পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে খেলতে পারবে।

আইসিসির অপেশাদারিত্ব আর সিদ্ধান্ত বদল নতুন নয়। কিন্তু তাই বলে টুর্নামেন্টের মাঝপথে, আর সেই টুর্নামেন্টটা বিশ্বকাপ! সত্যিই সেলুকাস, কি বিচিত্র; বিশ্ব ক্রিকেট প্রশাসক!

প্রথম পর্ব টপকে চূড়ান্ত পর্বে বাংলাদেশ যেতে পারবে কি পারবে না সেই মানসিক চাপ যখন সামলাতে হচ্ছে ক্রিকেটার-টিম ম্যানেজমেন্ট-বোর্ড কর্তাদের, তখন বাংলাদেশকে ভাবতে হচ্ছে আরও একটি বিষয়। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলে যেতে হবে ভিন্নপথে। খেলতে হবে ভিন্ন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে, ভিন্ন তারিখ আর মাঠে।

বুধবার সকালের একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি বদলে দেয় সব হিসাব-নিকাশ। আইসিসি এদিন জানালো প্রথম পর্বের এ গ্রুপ সেরা সুপার টুয়েলভে খেলবে গ্রুপ ওয়ানে। বি গ্রুপ সেরা গ্রুপ টুতে। অর্থাৎ বাংলাদেশ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলে ভাল আগের হিসাবে ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে খেলবে। গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে উঠলে খেলতে হবে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে।

দুই মাস তিনদিন আগে ১৭ আগস্ট ২০২১ এই বিতর্কের সূত্রপাত। সেদিন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সূচি ঘোষণা করে আইসিসি। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নির্দিষ্ট করে বলে দেয়া হয় শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশ প্রথম পর্ব থেকে সুপার টুয়েলভে উঠলেই, তাদের অবস্থান এ ওয়ান ও বি ওয়ান হবে।

যদিও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সম্ভাবনা এখনও আছে বাংলাদেশের। সেজন্য জিততে হবে পাপুয়া নিউগিনির সাথে। আর স্কটল্যান্ডকে হারতে হবে ওমানের কাছে। তারপর রানরেট। বাংলাদেশের জয়ে বাড়বে রানরেট। বড় ব্যবধান নিশ্চিত করবে শীর্ষস্থান। আর ওমানের সঙ্গে, স্কটল্যান্ড জিতলে তাদের প্রথম পর্বে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়া নিশ্চিত।

সমীকরণ, সম্ভাবনা, নতুন চাপ সব পাশে ফেলে বাংলাদেশ চাইবে শুধু নিজেদের কাজটুকু করে রাখতে।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন