ক্যারিবীয়দের হারিয়ে প্রতিশোধ নিল ইংল্যান্ড

930
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

পাঁচ বছর আগে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হেরেই শিরোপার স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল ইংল্যান্ডের। এবার সেই হারেরই প্রতিশোধ নিল ইয়ন মরগ্যানের দল।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) সুপার টুয়েলভের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে ইংলিশরা। আর এ জয়ে বিশ্বকাপের চলতি আসরে শুভ সূচনা পেল ওয়ানডে চ্যাম্পিয়নরা। অন্যদিকে প্রথম ম্যাচেই হার দিয়ে বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করল বর্তমান টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়নরা।

দুবাইয়ে শনিবার বলতে গেলে ক্যারিবীয়দের ধসিয়ে দিয়েছে ইংল্যান্ড। পোলার্ড-গেইলের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন রানের লজ্জায় ডুবিয়ে মাত্র ৫৫ রানে অলআউট করে ফেলে ইংলিশ বোলাররা। যদিও ছোট এ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েছে ইংলিশরাও।

ইংলিশ উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান জেসন রয় ১০ বলে ১১ রান করে রবি রামপালের বলে গেইলের কাছে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেছেন। এরপর জনি বেয়ারেস্টো ৬ বলে ৯ রান যোগ করে আকিল হোসাইনের বলে কাটা পড়েছেন। এরপর রান আউটের ফাঁদে পড়েন মঈন আলি। অন্যদিকে প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান লিয়াম লিভিংস্টোন ২ বলে ১ রান করে আকিলের দ্বিতীয় শিকার হয়েছেন।

এর আগে দুবাই ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছিল পোলার্ডের ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। তবে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়া গেইল-পোলার্ডরা শেষ পর্যন্ত আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি।

এর আগে একের পর এক আসা-যাওয়ার মিছিলে শেষ পর্যন্ত ক্যারিবীয়দের ইনিংস থেমে গেছে সবকটি উইকেট হারিয়ে মাত্র ৫৫ রানে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এটি উইন্ডিজদের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন ইনিংস। এর আগে ২০১৯ সালে এই ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই নিজেদের ইতিহাসের সর্বনিম্ন ৪৫ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল ক্যারিবীয়রা।

একের পর এক সাজঘরে ফেরেন লিন্ডলে সিমন্স, এভিন লুইস, শিমরান হেটমায়ার, ক্রিস গেইল, ডোয়াইন ব্রাভো, নিকোলাস পুরান ও আন্দ্রে রাসেলরা। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই এভিন লুইসকে হারায়। ৫ বলে ৬ রান করে ক্রিস ওকসের বলে মঈন আলির কাছে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন এই ওপেনার। অন্যদিকে তৃতীয় ওভারে মঈন আলির বলে ফিরে গেছেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান লিন্ডলে সিমন্সও। আউট হওয়ার আগে ৭ বলে মাত্র ৩ রান করতে পেরেছিলেন তিনি।

এদিকে ইংলিশ অলরাউন্ডার মঈন আলির দ্বিতীয় শিকার মারকাটারি ব্যাটার শিমরান হেটমায়ার। ৯ বলে ৯ করে ফিরে গেছেন তিনিও। এছাড়া হতাশ করেছেন ‘ইউনিভার্স বস’ ক্রিস গেইলও। দলের এমন ব্যাটিং বিপর্যয়ে হাল ধরতে পারেননি তিনিও। ১৩ বলে ১৩ রান করে ফিরে গেছেন তিনি।

গেইলের পর ডোয়াইন ব্রাভো ক্রিস জর্ডানের বলে ৫ বলে ৫ করে ফিরে গেছেন। এছাড়া মিলসের বলে কাটা পড়েছেন নিকোলাস পুরানও। করেছেন ৯ বলে মাত্র ১ রান।

সতীর্থদের আসা-যাওয়ার মিছিলে দলের হাল ধরতে পুরোপুরি ব্যর্থ দলপতি কাইরন পোলার্ডও। আদিল রশিদের বলে ১৪ বলে ৬ রান করে সাজঘরে ফিরে গেছেন তিনি।

বল হাতে এদিন সবচেয়ে সফল ছিলেন আদিল রশিদ। ২ ওভার দুই বলে মাত্র ২ রান দিয়ে মূল্যবান চারটি উইকেট তুলে নিয়েছেন ইংলিশ এই স্পিনার। অন্যদিকে, আরেক স্পিন অলরাউন্ডার মঈন আলি নিয়েছেন ২টি উইকেট। এছাড়া মিলসও দুটি উইকেট শিকার করেছেন। পাশাপাশি ১টি করে উইকেটের দখল ক্রিস ওকস এবং ক্রিস জর্ডানের।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন