বিশ্বকাপে মেসির আর্জেন্টিনা

591
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

দক্ষিণ আমেরিকা পর্বের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ব্রাজিলের বিপক্ষে নিজেদের মাঠে জয় পায়নি আর্জেন্টিনা। তবে চিলি-ইকুয়েডর ম্যাচের ফলাফল মেসিদের পক্ষে আসায় কাতার বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়ে গেছে লিওনেল মেসির দলের।
এর আগে বছরের তৃতীয় সুপার ক্লাসিকো শেষ হয় গোল শূন্য ড্র দিয়ে। এরই মধ্যে কাতারের টিকিট কেটে ফেলা নেইমারদের বিরুদ্ধে এই ম্যাচ জিতলে কাতার যাওয়া নিশ্চিত হতো মেসিদের। তবে তা না হওয়ায় অপেক্ষা বাড়ে আলবিসেলেস্তেদের। এরপরই ছিল চিলি এবং ইকুয়েডরের ম্যাচ। আর সেই ম্যাচে ইকুয়েডরের কাছে চিলি ২-০ গোলে হারতেই বিশ্বকাপে জায়গা নিশ্চিত হয়ে যায় আর্জেন্টিনার।

নেইমার ছিলেন না, মাঝমাঠে যার সঙ্গে গড়ে ওঠে তার রসায়ন, সেই লুকাস পাকেতাও ছিলেন এদিন তার ছায়া হয়েই। নিষেধাজ্ঞার কারণে ছিলেন না ক্যাসেমিরো, তার বদলে দলে আসা ফ্যাবিনিও ছাপ ফেলতে পারেননি দলের মাঝমাঠে। ব্রাজিলের বলের দখলেও ছাপ পড়েছে বেশ। শুরুর দশ মিনিটে সেলেসাওরা বলের দখলেই ছিল কেবল মিনিট তিনেকের মতো সময়। পরে সেটা কাটিয়ে উঠেছে দলটি, তবে পুরো ম্যাচে বলের দখলে আর্জেন্টিনার আধিপত্যই ছিল বেশি। খেলা শেষে ৫৭ শতাংশ বলের দখল সাক্ষ্য দেয় তারই।

ম্যাচে নেইমারবিহীন ব্রাজিলের সঙ্গে বেশ কয়েকবার গোল করার সুযোগ পেলেও সেগুলো কাজে লাগাতে পারেনি মেসিরা। অন্যদিকে, ব্রাজিলও ভালো কিছু সুযোগ হাতছাড়া করেছে। ম্যাচের প্রথম দিকে আর্জেন্টিনার বক্সে ওতামেন্ডির ট্যাকলে ব্রাজিলের পেনাল্টি পাওয়ার সুযোগ তৈরি, কিন্তু রেফারি তা লক্ষ্য করেনি। এমনকি, ভিএআর চেক করার পরও রেফারির সিদ্ধান্তের কোনো পরিবর্তন হয়নি।

এরপর ব্রাজিলের হয়ে ভিনিসিয়াস ভালো একটি সুযোগ তৈরি করলেও গোলবার মিস করায় তা কাজে আসেনি। আর্জেন্টাইন সুপারস্টার মেসি কয়েকটি সুযোগ পেলেও এদিন ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্সের মুখে বারবার আটকে যায়। প্রথমার্ধে ব্রাজিল খুব বেশি গোলের সুযোগ তৈরি করতে না পারলেও আর্জেন্টিনাকে ঠিকই প্রতিরোধ করেছে। তবে, ম্যাচের একদম শেষের দিকে মেসির একটি সুযোগ আটকে দেয় ব্রাজিলিয়ান গোল রক্ষক এলিসন বেকার।

তবে আলবিসেলেস্তে আক্রমণ এদিন বিবর্ণ থাকলেও রক্ষণ মোটেও পা হড়কায়নি। তাই তো ব্রাজিলের বিরুদ্ধে মহামূল্য এক পয়েন্টও অর্জন করে ফেলেছে স্ক্যালোনির শিষ্যরা। এই একটা পয়েন্টই আর্জেন্টিনাকে তুলে দিয়েছে বিশ্বকাপে।

বর্তমানে ১৩ ম্যাচ শেষে আর্জেন্টিনার সংগ্রহ ২৯ পয়েন্ট। চার আর পাঁচে থাকা কলম্বিয়া ও পেরুর সংগ্রহ ১৭। দুটি দলই খেলেছে আর্জেন্টিনার চেয়ে একটি করে বেশি ম্যাচ। ফলে সবার বাকি আছে চারটি করে খেলা।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন