রাষ্ট্রপতির কাছে খালেদার ক্ষমা চাওয়ার প্রশ্নই আসে না: বিএনপি

710
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

রাষ্ট্রপতির কাছে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ক্ষমা চাওয়ার কোন প্রশ্নই আসে না বলে জানিয়েছে বিএনপি। বরং তার প্রতি অবিচার করায় ক্ষমতাসীনদেরই জাতির কাছে মাফ চাওয়ার সময় এসেছে বলে মত বিএনপি নেতাদের।

রাজধানীর একটি হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি চেয়ারপারসনকে বিদেশে নিতে বিএনপি জোর দাবি জানালেও ক্ষমতাসীদের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে রাষ্ট্রপতির দুয়ার এক্ষেত্রে খোলা রয়েছে। খালেদা জিয়ার বিদেশে উন্নত চিকিৎসার সুযোগের বিষয়ে গেল জুনে জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইতে পারেন বলে মন্তব্য করেন আইনমন্ত্রীর।

তবে, এর জবাবও দিয়েছে বিএনপি। দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেন, ‘খালেদা জিয়া একদিনে হয়নি। খালেদা জিয়া মানুষের ভাষা বুঝেছে, আন্দোলন করেছে এবং গণতন্ত্র ফিরিয়ে এনেছে। জোর করে ক্ষমতায় থাকার চেষ্টা তিনি করেননি। এমন কিছু হয়ে যায়নি যে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইতে হবে, আর ক্ষমা চাওয়ার মানুষ খালেদা জিয়া না।’

বিএনপি নেতাদের দাবি চেয়ারপার্সন নির্দোষ। তাই রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাওয়ারও কোন কারণ নেই। দলটির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির কাছে কারা ক্ষমা চাইবে? যারা খুনের মামলার আসামি। কিন্তু খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে এভাবে কথা বলছে তারা। রাজনৈতিক সংস্কৃতিকে যেভাবে ধ্বংস করে দিচ্ছে সরকার এতে ভবিষ্যতে পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ রূপ নেবে।

বিএনপি নেতাদের মতে, খালেদা জিয়া নন বরং ক্ষমা চাইতে হবে ক্ষমতাসীনদেরই। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, তারা নিজেরা যে অন্যায় অবিচার করেছে এজন্য তাদেরকেই ক্ষমা চাইতে হবে। নির্বাচনের আগে মিথ্যা মামলা সাজিয়ে তাকে জেলে দিয়েছে, জেলে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করেনি, তাকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে। ক্ষমাতো তাদেরকে চাইতে হবে। শুধু ক্ষমা নয়, বাংলাদেশের রাজনৈতিক বোঝা তাদেরকে সারা জীবন বহন করতে হবে।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন