সিইসি নিষেধাজ্ঞা নিয়ে যা জানালো মার্কিন দূতাবাস

813
প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ ও পররাষ্ট্র দপ্তর থেকে গত ১০ ডিসেম্বর র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‍্যাব) এবং এর সাবেক-বর্তমান সাতজন শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এরপর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ অন্যান্য মাধ্যমে আরো নতুন নতুন নিষেধাজ্ঞার ইঙ্গিত আসতে দেখা যায়।

এদিকে শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদার বিরুদ্ধেও নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র বলে দাবি করেছেন বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান মেজর অবসরপ্রাপ্ত এম হাফিজ উদ্দিন আহমদ।

তিনি বলেন, একটা অধিকারবিহীন দেশে আমরা বসবাস করছি। আজ যুক্তরাষ্ট্রে কেন বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হচ্ছে? সর্বশেষ নিষেধাজ্ঞা কাকে দেওয়া হয়েছে? প্রধান নির্বাচন কমিশনার হুদা সাহেবকে (কে এম নুরুল হুদা) নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। এতে বিশেষভাবে প্রমাণিত হলো, নৈশ ভোটের কারিগর কারা।

তবে মেজর হাফিজ এই তথ্য কোথায় পেয়েছেন, তা নিশ্চিত করেননি।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদাকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা আরোপের তথ্য বিএনপি নেতা এম হাফিজ উদ্দিন আহম্মদ কোথায় পেয়েছেন, তা উল্লেখ করেননি। শনিবার (৮ জানুয়ারি) তার ওই বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের মুখপাত্র চ্যানেল 24 কে বলেন, ‘নতুন কোনো নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করা হয়নি।’

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বিভিন্ন মহলের বক্তব্যের বিষয়ে অবগত ঢাকার মার্কিন দূতাবাস। তবে তারা বলেছে, ১০ ডিসেম্বরের পর বাংলাদেশি কারো ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়নি।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন