রাশিয়া-ইউেক্রন উত্তেজনা: ইউরোপে সেনা বাড়াচ্ছে যুক্তরাজ্য

850
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

যুক্তরাষ্ট্রের পর এবার যুক্তরাজ্য ইউরোপে সেনা বাড়ানোর কথা জানিয়েছে।
ইউক্রেন ইস্যুতে রাশিয়ার ওপর চাপ বাড়াতে পূর্ব ইউরোপে সেনা বাড়াতে ন্যাটোকে প্রস্তাব দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। স্থানীয় সময় শনিবার এক বিবৃতিতে এমন ঘোষণা দেন তিনি।

এক বিবৃতিতে জনসন জানিয়েছেন, ইউরোপে মোতায়েন করা নিজেদের সেনা ও সামরিক সরঞ্জামের পরিমাণ বাড়াতে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটোকে প্রস্তাব দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। আগামী সপ্তাহেই ন্যাটোর প্রধান কর্মকর্তাদের কাছে সামরিক উপস্থিতিতি বাড়ানোর প্রস্তাব নিয়ে যাবে লন্ডন।

সম্প্রতি ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়ার সেনা মোতায়েনে চলমান উত্তেজনার মধ্যে সেনা বাড়ানোর ঘোষণা ক্রেমলিনের প্রতি যুক্তরাজ্যের স্পষ্ট বার্তা বলে উল্লেখ করেন বরিস। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, যুক্তরাজ্য সব সময় ন্যাটো মিত্রদের পাশে থাকবে। এমন কি অস্থিতিশীল কোন কার্যকলাপ সহ্য করা হবে না।

বরিস জনসনের এই প্রস্তাব গ্রহণ হলে সেনা ও যুদ্ধাস্ত্রের পরিমাণ দ্বিগুণ করা হতে পারে।

এর আগে গত শুক্রবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, পূর্ব ইউরোপে ন্যাটোর শক্তি বাড়াতে কিছু সেনা পাঠাবেন তিনি। তবে সেনা সংখ্যা কত হবে তা নিশ্চিত করা হয়নি। যদিও ইউরোপে হাজারো মার্কিন সেনা রয়েছেন। তবে এসব সেনাদের বেশির ভাগই রয়েছেন ইউরোপের পশ্চিমাঞ্চলে।

ইউক্রেনের উত্তর, পূর্ব ও দক্ষিণ সীমান্ত ঘিরে রাশিয়া প্রায় ১ লাখ সেনা মোতায়েনের পর চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইউক্রেন দখলের পরিকল্পনার অভিযোগ এনেছে। তবে মস্কো এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন