হজে লোক পাঠানোর কথা বলে দেশজুড়ে সক্রিয় সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র

464
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

হজে যেতে ইচ্ছুকদের টার্গেট করে প্রতারণায় সংঘবদ্ধ চক্র। সরকারিভাবে হজে পাঠানোর নামে হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা। এখনও শুরু হয়নি হজের কোনো কার্যক্রম। এমনকি বাংলাদেশ থেকে হজে অংশ নেয়ার সুযোগ থাকবে কি-না, তা নিয়েও আছে অনিশ্চয়তা। তারপরও হজে যেতে ইচ্ছুকদের টার্গেট করে প্রতারণায় নেমেছে সংঘবদ্ধ চক্র। সরকারিভাবে হজে পাঠানোর নামে হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা। এরকম অনেক অভিযোগ পেয়ে সবাইকে সতর্ক করতে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তিও দিতে হয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়কে।

করোনার কারণে গেলো দুই বছর সীমিত পরিসরে হচ্ছে হজ। বাইরের কোনো দেশ থেকে অংশ নিতে পারেননি কেউই। কেবল আগে থেকেই সৌদি আরবে বসবাসরত অল্পসংখ্যক নাগরিক হজ পালনের সুযোগ পেয়েছেন।

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় এ বছরও বাংলাদেশসহ অন্য দেশ থেকে কেউ যেতে পারবেন কি-না, তা নিয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি সৌদি সরকার। কিন্তু এরইমধ্যে সরকারিভাবে হজে পাঠানোর নামে প্রতারণা শুরু করেছে সংঘবদ্ধ চক্র, যার খপ্পড়ে পড়তে পড়তে বেঁচে গেছেন পাবনার পারখিদিরিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফতাব হোসেন।

তিনি বলেন, আমাকে বলেছে যে এমপি সাহেবের সঙ্গে তিনজনকে সরকারিভাবে হজে নেয়া হবে। তিনজনের মধ্যে আমার নাম তালিকায় আছে। আমাকে একটা নাম্বার দিয়ে বলেছে যে ধর্ম মন্ত্রণালয়ে কাজ করে উনার সঙ্গে কথা বলার জন্য। আমি ওই নাম্বারে ফোন দিলে সে ধর্ম মন্ত্রণালয়ে কাজ করে বলে। আমার নাম মন্ত্রণালয় থেকে নাকি হজের জন্য সিলেক্ট করা হয়েছে। আমাকে তখন সাড়ে সাত হাজার টাকা বিকাশ করতে বলে নিবন্ধনের জন্য। নিবন্ধনের সঙ্গে সঙ্গে আমাকে পঞ্চাশ হাজার এবং হজে যাওয়ার সময় আমাকে আরও পঞ্চাশ হাজার টাকা দেয়ার কথা বলে।

তবে বেশিরভাগ টার্গেট ব্যক্তির কাছ থেকেই টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারকরা। এরকম বেশকিছু অভিযোগের পর হজে যেতে ইচ্ছুকদের সতর্ক করতে গণমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তিও দিতে হয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়কে। প্রতারণার জাল থেকে রক্ষা পেতে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান বলেন, এসব প্রতারকদের আইনের আওতায় আনার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। আমি সবাইকে এসব প্রতারক থেকে সাবধান থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

হজ গমনে ইচ্ছুকদের সতর্ক করতে বিভিন্ন এজেন্সির মাধ্যমে পরামর্শ দেয়ার কথা জানিয়েছে হাব।

হাবের সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, যেসকল এজেন্সির যে যে হজ যাত্রী আছে, তাদের দায়িত্ব হচ্ছে এসব যাত্রিদের সতর্ক করা। পাশাপাশি হজ যাত্রীরাও তাদের আসেপাশের মানুষকেও সতর্ক করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

এদিকে, মোবাইল ফোন নম্বর ধরে প্রতারকদের গ্রেপ্তারে অভিযানে নামছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন