এক মাস পর প্রাণ ফিরেছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে

646
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

আজ খুলেছে স্কুল-কলেজ। সকাল থেকেই প্রিয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আসতে শুরু করেছে শিক্ষার্থীরা। হাত স্যানিটাইজ করাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের শ্রেণিকক্ষে ঢোকানো হয়।

যাদের করোনা টিকা নেয়া আছে সেইসব শিক্ষার্থীরাই সশরীরে ক্লাসে যোগ দিতে পারছে। অন্যদের ক্লাস করতে হবে অনলাইনে। সরকার তাদেরও দ্রুত টিকার আওতায় নেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এদিকে, দীর্ঘ বিরতির পর ক্লাসে ফিরতে পেরে খুশি শিক্ষার্থীরাও। আর শিক্ষার্থীদের পদচারণায় খুশি শিক্ষকরাও।

এর আগে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কীভাবে চলবে সে বিষয়ে ২০টি নির্দেশনা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর। এতে বলা হয়, স্কুল-কলেজ খোলার প্রথম দিন শিক্ষার্থীদের আনন্দঘন পরিবেশে স্বাগত জানাতে হবে। ওই নির্দেশনা অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের মধ্যে যারা দুই ডোজ টিকা নিয়েছে তারাই সশরীরে ক্লাসে অংশ নিতে পারবে। শ্রেণিকক্ষে বসার ক্ষেত্রে তিন ফুট শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতেও বলা হয়ছে সবাইকে। এছাড়া শিক্ষার্থীরা কীভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে সেটি তাদের বুঝিয়ে বলতেও নির্দেশ দেয়া হয়েছে প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষকে।

উল্লেখ্য, করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির ফলে গত ২১ জানুয়ারি থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পরে কারিগরি কমিটির পরামর্শ নিয়ে ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে স্কুল-কলেজ খোলার অনুমতি দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে এখনও শুরু হয়নি প্রাথমিকের শ্রেণিভিত্তিক শিক্ষা কার্যক্রম। আগামী ২ মার্চ থেকে তাদের সশরীরে ক্লাস শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন