বিশ্বযুদ্ধের শঙ্কায় প্রস্তুত হচ্ছে ন্যাটো!

253
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের মধ্যেই নরওয়েতে শীতকালীন সামরিক মহড়া শুরু করেছে পশ্চিমা দেশগুলো। এতে অংশ নিয়েছে ২৭টি দেশের ৩০ হাজারের বেশি সেনা সদস্য। তীব্র শীত আর তুষারপাতের মধ্যেই চলছে মহড়া। ন্যাটোর পক্ষ থেকে একে পূর্বনির্ধারিত রুটিন মহড়া হিসেবে দাবি করা হলেও বিশ্লেষকরা বলছেন, তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের আশঙ্কা থেকেই নিজেদের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে সামরিক মহড়ায় যোগ দিয়েছে ন্যাটো।

রাশিয়া-ইউক্রেন চলমান যুদ্ধে সতর্ক পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো। ইউক্রেনে রুশ অভিযান শুরুর পর ন্যাটো সরাসরি এতে না জড়ালেও কিয়েভকে বিভিন্ন উপায়ে সহযোগিতা করে যাচ্ছে পশ্চিমা দেশগুলো। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন বলছে, চলমান উত্তেজনার মধ্যেই নরওয়েতে ব্যাপক আকারে সামরিক মহড়ার শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত পশ্চিমা এ সামরিক জোট। নরওয়ের প্রতিরক্ষাবাহিনীর বরাতে সিএনএন জানিয়েছে, ২৭টি দেশের ৩০ হাজারের বেশি সেনা সদস্য, ৮ হাজার নৌসেনা এবং বিমানবাহিনীর ৮ হাজার সদস্য এ মহড়ায় অংশ নিয়েছে।

রাশিয়া-ইউক্রেন চলমান যুদ্ধের মধ্যেই ন্যাটোর এই সামরিক মহড়াকে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে দেখছেন নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, রাশিয়ার তাপমাত্রা সবসময় কম থাকায় তীব্র ঠান্ডায় যুদ্ধে টিকে থাকতে নরওয়েকেই সামরিক মহড়ার জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে।

যদিও ন্যাটোর দাবি, শীতকালীন মহড়ার অংশ হিসেবেই এই অনুশীলন। ২০২১ সালে করোনা মহামারির কারণে স্থগিত হওয়া ওই মহড়া এখন অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলেও দাবি করা হয়। ন্যাটো সংবিধানের আর্টিকেল-৫ অনুসারে সদস্য দেশের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়টি সামনে রেখে এই সামরিক মহড়া চালানো হচ্ছে। মহড়ার দায়িত্বে রয়েছেন নরওয়ের সেনাবাহিনীর জেনারেল ইংভি ওদলো।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন