রুশ হামলার এক মাস : বাড়ছে শরণার্থীর ঢল, লড়ে যাচ্ছে ইউক্রেন

393
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

ইউক্রেনে রাশিয়ার তথাকথিত ‘সামরিক অভিযান’ শুরু হওয়ার এক মাস পূর্ণ হয়েছে। এখন পর্যন্ত রুশ সেনারা ইউক্রেনের খুব বেশি শহর দখল করতে পারেনি। কেবল খেরসন শহরের পতন হয়েছে। আর, গুরুত্বপূর্ণ মারিউপোল ও খারকিভ শহর দখলের জন্য রুশ বাহিনী সেখানে গোলাবর্ষণ অব্যাহত রেখেছে। খবর আলজাজিরার।

যুদ্ধের সর্বশেষ পরিস্থিতি: একের পর এক ইউক্রেনীয় শহরে আছড়ে পড়ছে রুশ গোলা-বারুদ। রুশ বাহিনীর হামলায় তছনছ হয়ে যাচ্ছে ছবির মতো সুন্দর সাজানো ইউক্রেন। কিয়েভ, খারকিভ, খেরসন, মারিউপোলের মতো জনবসতিপূর্ণ শহরে আছড়ে পড়ছে গোলা-বারুদ ও বোমা।

যুদ্ধ এক মাস, বাড়ছে শরণার্থীর ঢল: রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে ‘সামরিক অভিযান’ চালানোর নির্দেশ দেওয়ার পর রুশ সেনারা প্রতিবেশী দেশটির ভেতরে ঢুকে পড়ে।

একমাস হলো ইউক্রেনে হামলা চালিয়ে যাচ্ছে রাশিয়া। যুদ্ধের পারদ যত চড়ছে, ততই বাড়ছে দেশটি ছেড়ে যাওয়া শরণার্থীর ঢল।

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা-ইউএনএইচসিআর গত মঙ্গলবার বলেছে, ইউক্রেন থেকে পোল্যান্ড, রোমানিয়া, মলদোভা ও হাঙ্গেরিতে ৩৫ লাখের বেশি মানুষ পালিয়ে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে, লাগাতার রুশ হামলার মুখেও লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে ইউক্রেন। গুরুত্বপূর্ণ বন্দরনগরী মারিউপোল দখল রুখতে রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে মরিয়া লড়াই অব্যাহত রয়েছে।

চার দিনের ইউরোপ সফরে বাইডেন: ন্যাটো শীর্ষ সম্মেলন উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন স্থানীয় সময় বুধবার বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে পৌঁছেছেন। সেখানে তিনি ন্যাটো এবং ইউরোপীয় মিত্রদের সঙ্গে দেখা করবেন এবং ইউক্রেনে আক্রমণ করায় রাশিয়ার বিরুদ্ধে নতুন আরও নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মার্কিন কূটনীতিকদের বহিষ্কার করল রাশিয়া: ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার হামলার সরাসরি জবাব না দিয়ে বারবার চোখ রাঙিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, নিয়েছে বিভিন্ন পদক্ষেপও। মস্কোর ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি দেশ। এবার তার পাল্টা জবাব দিল রাশিয়া। দেশটি মার্কিন কূটনীতিকদের বহিষ্কার করার ঘোষণা দিয়েছে।

বন্ধু নয় এমন দেশগুলো থেকে গ্যাস সরবরাহের জন্য কেবল রুশ মুদ্রা-রুবল গ্রহণ করবে বলে ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়া। গতকাল বুধবার এ বার্তা দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এর পাল্টা বিবৃতি দিয়েছে জার্মানি। রুবলে গ্যাসের মূল্য পরিশোধ চুক্তি লঙ্ঘনের সমান বলে জানিয়েছে জার্মানি।

এদিকে, ইউক্রেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধের জেরে আবারও ক্রীড়াজগতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে রাশিয়াকে। এবার রুশ ও বেলারুশদের বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে বাদ দিয়েছে সাঁতার ফেডারেশন।

ফরাসি পার্লামেন্টে ভিডিও বার্তায় গাড়ি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান রেনোঁকে রাশিয়া ছাড়ার ডাক দিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। সেইসঙ্গে তিনি সুপারমার্কেট গ্রুপ আউচান ও ডিআইওয়াই রিটেইল লেরয় মার্লিনসহ আরও ফরাসি কোম্পানিগুলোকে রাশিয়া ছাড়ার আহ্বান জানিয়েছেন। বুধবার ফরাসি পার্লামেন্টে ভাষণ দেওয়ার সময় ফরাসি কোম্পানিগুলোকে রাশিয়া ছাড়ার আহ্বান জানান জেলেনেস্কি।

এদিকে, ইউক্রেন যুদ্ধ ও মূল্যবৃদ্ধির প্রভাব সামলাতে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সম্ভাবনা কম দেখিয়েছে যুক্তরাজ্য। ছয় শতাংশের পরিবর্তে প্রবৃদ্ধির পরিমাণ দেখানো হয়েছে ৩ দশমিক ৮ শতাংশ।

আর, ইউক্রেনকে পারমাণবিক ও রাসায়নিক হুমকির বিরুদ্ধে লড়তে সাহায্য করবে বলে জানিয়েছে ন্যাটো’র মিত্র দেশগুলো। ইউক্রেনকে ‘বাড়তি সমর্থন’ দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন ন্যাটোপ্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ।

বুধবার ব্রাসেলসে এক সংবাদ সম্মেলনে ন্যাটো’র মহাসচিব জেনস স্টলটেনবার্গ বলেছেন, ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার যুদ্ধ ‘আমাদের নিরাপত্তার জন্য একটি নতুন হুমকি।’ ন্যাটো জোট নেতারা আজ বৃহস্পতিবারের ন্যাটো শীর্ষ সম্মেলনে ইউক্রেনের প্রতি আরও সমর্থন ঘোষণা করতে পারেন।

স্টলটেনবার্গ বলেন, ‘আমি আশা করি, নেতৃবৃন্দ জোটের পূর্ব অংশে, স্থলে, আকাশে ও সমুদ্রে শক্তি বৃদ্ধির পাশাপাশি সব এলাকায় ন্যাটোর অবস্থানকে আরও শক্তিশালী করতে সম্মত হবেন।’

ন্যাটো জোটপ্রধান আরও বলেন, ন্যাটো’র নেতারা রাশিয়ার দিক থেকে পারমাণবিক, রাসায়নিকসহ অন্যান্য হুমকি মোকাবিলায় একটি চুক্তি ঘোষণা করতেও প্রস্তুত।

এদিকে, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি আজ বৃহস্পতিবারের ন্যাটো শীর্ষ সম্মেলনে ভার্চুয়ালি ভাষণ দেবেন।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন