জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থা থেকে বরখাস্ত রাশিয়া

302
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

ইউক্রেনে গণহত্যার অভিযোগে জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থা ইউ/এন/এইচ/আর/সি থেকে রাশিয়াকে বরখাস্ত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে এ সিদ্ধান্ত হয়। তবে এতে ভোটদানে বিরত ছিল বাংলাদেশ।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সরে এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্র এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব উত্থাপন করে। ভোটাভুটিতে ৯৩টি দেশ রাশিয়াকে বরখাস্তের পক্ষে ভোট দেয়। বিপক্ষে পড়ে ২৪ ভোট। ৫৮টি দেশ ভোট দেয়া থেকে বিরত থাকে।

জেনেভা ভিত্তিক জাতিসংঘের ৪৭ সদস্যের মানবাধিকার কাউন্সিল থেকে রাশিয়াকে বাদ দিতে প্রস্তাবের পক্ষে ১৯৩ সদস্যের সাধারণ পরিষদের দুই-তৃতীয়াংশ সমর্থন প্রয়োজন ছিল।

৫৮ দেশ ভোট দান থেকে বিরত থাকায় তাদের অনুপস্থিত বলে বিবেচনা করা হয়। ফলে প্রস্তাবের পক্ষে ৯৩ ভোট পড়ায় তা দুইতৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে।

ভোট রাশিয়ার বিপক্ষে গেলেও এইদিন পুরাতন মিত্রকে পাশে পেয়েছেন পুতিন। ইউক্রেইন যুদ্ধের জেরে রাশিয়ার বিরুদ্ধে জাতিসংঘে উঠা আগের দুইটি রেজ্যুলেশনে চীন ভোট দান থেকে বিরত থাকলেও এদিন প্রস্তাবের বিপক্ষে ভোট দেয় বলে জানায় রয়টার্স।

ভোটের আগে চীনের রাষ্ট্রদূত ঝাং জুন বলেন, ‘‘জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে এভাবে তাড়াহুড়ো করা, যেটা সদস্য দেশগুলোকে একটি পক্ষ বেছে নিতে বাধ্য করছে। যা রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে বিভেদ বাড়িয়ে তুলবে।”

এদিকে জাতিসংঘে রাশিয়ার উপ রাষ্ট্রদূত গেনাডি কুজমিন বলেছেন, এখন ‘নাটক পরিবেশনার’ সময় নয়। তিনি উল্টো পশ্চিমা দেশ এবং তাদের মিত্রদের বিরুদ্ধে ‘বিদ্যমান মানবাধিকার স্থাপত্যকে ধ্বংসের’ চেষ্টা করার অভিযোগ তোলেন।

২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরুর পর সাধারণ পরিষদে রুশ-ইউক্রেন ইস্যুতে এটি তৃতীয় প্রস্তাব। ভোট গ্রহণের আগে জাতিসঙ্ঘে নিযুক্ত ইউক্রেনের দূত, রাশিয়ার বিরুদ্ধে নির্মম নির্যাতনের অভিযোগ আনেন।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন