হাসপাতালে ধারণক্ষমতার বেশি ডায়রিয়া রোগী

190
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

রাজধানীর মহাখালী আইসিডিডিআরবিতে ধারণক্ষমতার অনেক বেশি ডায়রিয়া রোগী ভর্তি রয়েছে। এপ্রিলে প্রতিদিনই রোগী ভর্তি হয়েছে ১৩ শতাধিক। ৯ দিনেই ভর্তি হয়েছে প্রায় ১২ হাজার। প্রায় এক মাস ধরে এ পরিস্থিতি চলছে।

চিকিৎসকরা বলছেন, প্রথমদিকে বেশি আক্রান্ত হচ্ছিলো শিশু। অনেকে দেরিতে হাসপাতালে আসায় দ্রুত অবনতি হয়েছে। এদিকে পরিস্থিতি সামলাতে এখনও হিমশিম খাচ্ছে চিকিৎসকরা।

আইসিডিডিআরবির সহকারী গবেষক ডা. তাহমিনা আলম জানান, শুরুতে ভর্তি রোগীদের ৬০ শতাংশ ছিল শিশু, এখন বেশি ভর্তি হচ্ছে বয়স্করা। পানিবাহিত এই রোগ নিয়ন্ত্রণে খাবার গ্রহণে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ চিকিৎসকদের।

ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় তাদের মতো অনেক পিতা-মাতা শিশুকে নিয়ে হাসপাতালে আসলেও বারান্দার মেঝেতেই স্থান হয়েছে। এদিকে, শিশু হাসপাতালেও বেড়েছে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা। চিকিৎসকরা জানান, ডায়রিয়া নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেও অনেকেই ভুগছেন নানা জটিলতায়।

এপ্রিলে শিশু হাসপাতালে ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হয়েছে ১৮০ জনেরও বেশি। যা আগের মাসগুলোর দ্বিগুণেরও বেশি।

এদিকে রাজধানী ছাড়াও দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রতিদিনই বাড়ছে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় বরগুনা সদর হাসপাতালটিতে রোগী ভর্তি হয়েছে অর্ধশত। যার মধ্যে নারী ও শিশুর সংখ্যাই বেশি।

ধারণক্ষমতার বেশি হওয়ায় রোগীদের ঠাঁই হয়েছে হাসপাতালটির মেঝেতে। এ মুহূর্তে খাবার স্যালাইন, আইভি সালাইন মজুদ থাকলেও রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেলে এসবের সংকট তৈরি পারে বলছেন চিকিৎসকরা। ১ এপ্রিল থেকে এখন পর্যন্ত ২১০ জনের বেশি রোগী ভর্তি হয়েছে।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন