নির্বাচনের আগেই তৃণমূলকে সাজাবে আওয়ামী লীগ

151
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

আগামী জাতীয় নির্বাচন সহজভাবে নিচ্ছে না আওয়ামী লীগ। সব দল এতে অংশ নেবে, এটি মাথায় রেখেই সংগঠন ঢেলে সাজানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্ষমতাসীন দল। ঈদের পর জুলাইয়ের মধ্যে সব জেলা ও উপজেলায় সম্মেলন শেষ করে নির্বাচনের মাঠ দখলে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ।

গেলো ২১ ফেব্রুয়ারি করোনার বিধিনিষেধ উঠে যাওয়ার পর থেকেই সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড জোরদার করে আওয়ামী লীগ। ফেব্রুয়ারিতে সভাপতিমণ্ডলীর সভায় ৩ মাসের মধ্যে তৃণমূলের সম্মেলন শেষ করার নির্দেশ দেন দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এরপর গত দেড় মাসে অনুষ্ঠিত হয় পাবনা, নওগাঁ, নাটোর, সিরাজগঞ্জ, পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁওয়ের মেয়াদোত্তীর্ণ জেলা কমিটির সম্মেলন। সব মিলে আওয়ামী লীগের ৭৮টি সাংগঠনিক জেলার মধ্যে ৩৯টির সম্মেলন শেষ হয়েছে, বাকি আছে আরো অর্ধেক। এছাড়া প্রায় দুশো উপজেলা আওয়ামী লীগও চলছে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি দিয়ে।

আগামী জাতীয় নির্বাচনে জিততে আওয়ামী লীগকে সব পর্যায়ে ঐক্যবদ্ধ ও শক্তিশালী দেখতে চায় কেন্দ্র। তাই ঈদের পর জুলাইয়ের মধ্যেই তৃণমূলে সংগঠনকে ঢেলে সাজানোর লক্ষ্য।

আওয়ামী লীগের সবশেষ ২১তম জাতীয় সম্মেলন হয় ২০১৯ সালের ২০ ও ২১ ডিসেম্বরে। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ৩ বছর পর পর সম্মেলন করার নিয়ম থাকায় এবং নির্বাচন প্রস্তুতির অংশ হিসেবে এবার ডিসেম্বরেই সম্মেলন করবে ক্ষমতাসীন দল।

কেন্দ্রীয় নেতারা জানাচ্ছেন, চলতি মাসেই আওয়ামী লীগের ৮১ সদস্যের কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠক হতে পারে। সেখানেই দলের সভাপতি শেখ হাসিনা জাতীয় সম্মেলনের তারিখ নিয়ে সিদ্ধান্ত দিতে পারেন।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন