বদলে যাচ্ছে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় নাম

235
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

বদলে যাচ্ছে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় নাম। এখন থেকে দেশটিকে ইংরেজিতে রাষ্ট্রীয়ভাবে টুর্কিয়ে (Türkiye) লেখা হবে। আঙ্কারার অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে রাষ্ট্রীয় নাম টুর্কি (Turkey) থেকে টুর্কিয়ে (Türkiye) ব্যবহারে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মতি দিয়েছে জাতিসংঘ।

আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছরের ডিসেম্বরে দেশের নামের বানান পরিবর্তনে জাতিসংঘ বরাবর আবেদন করে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (২ জুন) জাতিসংঘ মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক বলেন, তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসগলুর কাছে থেকে বুধবার (১ জুন) একটি চিঠি পান মহাসচিব আন্তরিও গুতেরেস। চিঠিতে তিনি সব জায়গায় থেকে Turkey ইংরেজি বানান পরিবর্তন করে Türkiye ব্যবহারের অনুরোধ জানান।

মুখপাত্র দুজারিক আরও বলেন, চিঠি পাওয়ার পর থেকেই দেশেটির নাম পরিবর্তন কার্যকর হয়েছে। এর আগে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাতিসংঘ ও অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থার বরাবর চিঠিটি আনুষ্ঠানিক জমা দেওয়ার ঘোষণা দেন।

মেভলুত কাভুসগলু তুর্কিভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সিকে বলেন, আমরা জাতিসংঘ ও অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থা, দেশগুলোর জন্য টুর্কিয়ে (Türkiye) ব্যবহারে পরিবর্তন করাতে সম্ভব হয়েছি’।

গত বছরের ডিসেম্বরে এক স্মারকলিপি প্রকাশ করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান। ওই স্মারকলিপিতে তুর্কি জনগণকে সব জায়গায় Türkiye নামটি ব্যবহার করার আহ্বান জানান তিনি।

সেই সময় এরদোগান বলেন, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মঞ্চে আমাদের দেশের জন্য সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য প্রতীক হল টুর্কিয়ে (Türkiye)। তিনি আরও বলেন, টুর্কিয়ে (Türkiye) শব্দটিই তুর্কি জাতি, সংস্কৃতি ও সভ্যতাকে সবচেয়ে ভালোভাবে উপস্থাপন করে।

এছাড়া তুর্কি কোম্পানিগুলোকে তাদের রফতানি পণ্যে ‘মেড ইন টুর্কিয়ে’ (Made in Türkiye) লেখার পরামর্শ দেন এরদোগান।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন