নতুন সময়সূচিতে অফিস চলবে কতদিন, জানালেন প্রতিমন্ত্রী

16
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ে পরবর্তী প্রজ্ঞাপন না হওয়া পর্যন্ত আজ থেকে শুরু হওয়া নতুন সময়সূচিতে সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত অফিস চলবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী মো. ফরহাদ হোসেন।

বুধবার (২৪ আগস্ট) সচিবালয়ে গণমাধ্যম কেন্দ্রে বিএসআরএফ গ্রুপ বীমা চুক্তি অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তিনি। বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ফরহাদ হোসেন বলেন, অফিসের নতুন সময়সূচি পরবর্তী প্রজ্ঞাপন না দেওয়া পর্যন্ত চলবে। এখন দিন বড়। দিনের আলো পাচ্ছি বেশি।

তিনি বলেন, এটা পারমানানেন্ট (স্থায়ী) সিদ্ধান্ত নয়। দিনের আলো বেশি ব্যবহার করতে পারলে বিদ্যুৎ সাশ্রয় হবে। সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে।

আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি বলে মন্তব্য করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকারি অফিসের সময় কমানোতে কোনো কাজ জমে থাকবে না এবং সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে কোনো অসুবিধা হবে না।

নতুন সময়সূচির প্রথম দিন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সবাই স্বতঃস্ফূর্তভাবে সঠিক সময়ে অফিসে এসেছে। স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ করতে পারছি। সবাই অ্যাডজাস্ট করে নিতে পারছে। সময়সূচিটা যথেষ্টা ভালো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার (২২ আগস্ট) জ্বালানি ও বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য সারাদেশের সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত অফিসের সময়সূচিতে পরিবর্তন এনে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সরকার ২৪ আগস্ট (বুধবার) থেকে দেশের সব সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা-স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের অফিস সময়সূচি পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত নির্ধারণ করল- রোববার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত। শুক্রবার ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি।

এতে বলা হয়, জরুরি পরিষেবাসমূহ নতুন অফিস সময়সূচির আওতাবহির্ভূত থাকবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর সময়সূচি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগ নির্ধারণ করবে।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, ব্যাংক, বিমা, অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের দাপ্তরিক সময়সূচি সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। উল্লেখ্য, এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন