চট্টগ্রাম উত্তরের ৭ উপজেলায় জেলা পরিষদের ভোটে যারা বিজয়ী

35
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

আব্দুর রহিম আজাদ, চট্টগ্রাম উত্তর প্রতিনিধি: জেলা পরিষদ নির্বাচনে উত্তর চট্টগ্রামের ৭ উপজেলার সদস্য পদে চারটিতে নির্বাচন হয়েছে। অপর তিন উপজেলায় সদস্যরা নির্বাচিত হয়েছেন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়।

সোমবার (১৭ অক্টোবর) দিনব্যাপি চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই নির্বাচনে প্রতিটি ভোট কেন্দ্র ও বুথে বসে সিসিটিভি ক্যামেরা। এসব ক্যামেরার মাধ্যমে নির্বাচনে ভোটগ্রহণ পর্যবেক্ষণ করা হয় ঢাকার নির্বাচন কমিশন সচিবালয় ও চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন অফিস থেকে।

সকাল ৯টা থেকে বিকাল ২টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে উত্তর চট্টগ্রামের ৭ উপজেলাসহ চট্টগ্রামের ১৫টি উপজেলার ৩০টি বুথে এক টানা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। চেয়ারম্যান পদে দুই প্রার্থী ছাড়াও ১৫ উপজেলায় ১৫টি সাধারণ সদস্য পদে ৪৬ জন ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের পাঁচ পদের বিপরীতে ২২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

এর মধ্যে উত্তর চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড, সন্দ্বীপ, ফটিকছড়ি ও হাটহাজারী উপজেলায় সরাসরি ভোটগ্রহণ করা হয়। অন্যদিকে মিরসরাই, রাউজান ও রাঙ্গুনিয়া উপজেলা থেকে সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায়।

নিজস্ব প্রতিবেদক ছাড়াও নিজ নিজ উপজেলা থেকে তথ্য সংগ্রহ করে পাঠিয়েছেন চট্টগ্রাম প্রতিদিনের মিরসরাই প্রতিনিধি আজিজ আজহার, সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি শেখ সালাহউদ্দিন।

হাটহাজারীতে আবরাহা: উত্তর চট্টগ্রামের হাটহাজারী থেকে সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন এইচএম আলী আবরাহা (অটোরিকশা) । তিনি ভোট পেয়েছেন ৫২টি। তার নিটকতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাফর আহমেদ (টিউবওয়েল)পেয়েছেন ৩৬ ভোট। অন্য প্রার্থীদের মধ্যে মোহাম্মদ আলমগীর(তালা) পেয়েছেন ৩৫ ভোট।একই আসনে সংরক্ষিত মহিলা আসনে নির্বাচিত হয়েছেন জুবাঈদা ছরওয়ার চৌধুরী নিপা (ফুটবল)। তিনি পেয়েছেন ১২৩ ভোট। অন্যদিকে তার নিকটম প্রতিদ্বন্দ্বিতা দিলুয়ারা ইউছুপ (হরিণ) পেয়েছেন ৫৫ ভোট।

ফটিকছড়িতে পারভেজ: ফটিকছড়ি থেকে আখতার উদ্দিন মাহমুদ পারভেজ ১৬৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আমান উল্লা খান চৌধুরী পেয়েছেন ৯৪ ভোট।

সন্দ্বীপে ছিদ্দিক: সন্দ্বীপ উপজেলা থেকে জেলা পরিষদ সদস্য হয়েছেন ছিদ্দিকুর রহমান। তিনি ভোট পেয়েছেন ৮৭।

সীতাকুণ্ডে দিলশাদ: উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আ ম ম দিলশাদ (অটোরিক্সা) ৭৭ ভোট পেয়ে সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী পেয়েছেন শওকতুল আলম (হাতি) পেয়েছেন ৬৬ ভোট। একই আসনে সংরক্ষিত মহিলা আসনে নির্বাচিত হয়েছেন রওশন আরা বেগম (হরিণ)। তিনি পেয়েছেন ১৫০ ভোট। অন্যদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইয়াসমিন আক্তার কাকলী (বই) পেয়েছেন ১৪৪ ভোট। ১৪৪ ভোটের মধ্যে ১৪৩টি ভোট গৃহীত হয়।

রাউজানে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতার জয়: রাউজান উপজেলা থেকে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় সদস্য নির্বাচিত হন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আবদুল ওহাব।

মিরসরাইয়ে বিনা ভোটের জয়: চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে সংরক্ষিত সদস্য পদে-১ (মিরসরাই, সীতাকুণ্ড ও সন্দ্বীপ) নির্বাচিত হয়েছেন রওশন আরা বেগম রত্না (হরিণ)। এর আগে মিরসরাই উপজেলা থেকে সাধারণ সদস্য পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী। সোমবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে দুটি বুথে ইভিএমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। মিরসরাই উপজেলায় ২৩৭ জন ভোটারদের মধ্যে ২২৯ জন জনপ্রতিনিধি ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। নির্বাচনে বাতিল হয়েছে ১ ভোট। সংরক্ষিত সদস্য-১ পদে রওশন আরা বেগম রত্না হরিণ প্রতিকে ১৫০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। বই প্রতীকে ১৪৪ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় হয়েছেন ইয়াসমিন আক্তার কাকলী ও দোয়াত কলম প্রতীকে ১৩৭ ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছেন ইসমত আরা সুলতানা এবং ফুটবল প্রতিকে ১২৪ ভোট পেয়ে ৪র্থ হয়েছেন জাহানারা নাজনীন।

রাঙ্গুনিয়ায় কাশেম চিশতী: চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৭ নম্বর রাঙ্গুনিয়া ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন আবুল কাশেম চিশতী।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন