দুদকের নজরদারিতে মিসরের উড়োজাহাজ লিজে দুর্নীতি মামলার আসামিরা

170
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

মিসরের উড়োজাহাজ লিজে দুর্নীতি মামলার আসামিদের নজরদারিতে রেখেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) গোয়েন্দারা। বিমান সূত্র বলছে, মামলার আগেই পলাতক প্রধান আসামি ক্যাপ্টেন ইসরাত। বাকি আসামিদের গতিবিধি সন্দেহজনক হলেই দেওয়া হবে বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা।

২০১৪ সালে ৫ বছরের চুক্তিতে ইজিপ্ট এয়ার থেকে দুটি বোয়িং লিজ নেয় বিমান। ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ফ্লাইট পরিচালনার পর বিকল হয় উড়োজাহাজ দুটি। ২০২০ সালে ফেরত দেয়ার আগ পর্যন্ত এর পেছনে মেরামত ও লিজ বাবদ ক্ষতি হয় ১১শ ৬১ কোটি টাকা।

এ ঘটনায় সংসদীয় কমিটির পর, অনুসন্ধানে নামে দুদক। জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় লিজের দুইটি কমিটির ২১ জনকে। ৬ ফেব্রুয়ারি ২৩ জনকে আসামি করে হয় মামলা।

পরে ১৭ আসামিকে ৩ সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। তবে বিমান সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালেই কানাডায় পালিয়ে যান প্রধান আসামি ক্যাপ্টেন ইশরাত আহমেদ। তাই আত্মসমর্পণ না করা পর্যন্ত বাকিদের ওপর নজর রাখছে দুদক গোয়েন্দারা।

দুদক কমিশনার মোজাম্মেল হক খান বলেন, আসামিদের আর্থিক লেনদেন, চলাফেরা, সামাজিক গণমাধ্যমসহ সবদিকে নজর রাখছে দুদক। পালাতে পারেন এমন সন্দেহ হলেই, বিদেশযাত্রায় দেওয়া হবে নিষেধাজ্ঞা।

উড়োজাহাজ লিজের এই দুর্নীতি মামলার আসামি তালিকা তদন্তের প্রেক্ষিতে আরও দীর্ঘ হতে পারে বলেও জানিয়েছে দুদক।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন