দেশকে এগিয়ে নিতে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

150
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

দেশকে এগিয়ে নিতে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, একমাত্র নৌকা হলেই মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন হয়।

মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মিঠামইন উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত সুধী সমাবেশে তিনি এ আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রীকে মঞ্চে দেখে উচ্ছ্বসিত হয়ে ওঠেন সমাবেশে অংশ নেয়া লাখো মানুষ। এসময় তারা নানা স্লোগান দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। এর আগে দুপুর ১টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আবদুল হক নূরুর সভাপতিত্বে সুধী সমাবেশ শুরু হয়। এসময় কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় সমাবেশস্থল।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পিছিয়ে পড়া হাওরে এখন উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। এজন্য হাওরের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আবারও নৌকা প্রতীকে ভোট চাইলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

আরও পড়ুন: প্রেমিকের টানে ফের বাংলাদেশে আসছেন ইন্দোনেশিয়ান তরুণী, বাউফলে বিয়ের উৎসব

শেখ হাসিনা বলেন, এখন থেকে হাওরের সব সেতু উড়াল হবে। হাওরের সড়কগুলোতে যেন সারাবছর যাতায়াত করা যায় সেই ব্যবস্থা সরকার করছে। এছাড়া হাওরের ফসল রক্ষায় বাঁধ নির্মাণ, নদী ড্রেজিংসহ প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা তার সরকার নেবে।

তিনি জানান, এক সময় কিশোরগঞ্জ ছিল অবহেলিত অঞ্চল। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর কিশোরগঞ্জে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করেছে, যার কারণে এখন আর কিশোরগঞ্জ অবহেলিত নয়, উন্নত একটি জেলা।

প্রধানমন্ত্রী কিশোরগঞ্জের মানুষের প্রশংসা করে বলেন, এই কিশোরগঞ্জ তিন জন রাষ্ট্রপতির জেলা। মুক্তিযুদ্ধের সময় অস্থায়ী সরকারের প্রধান ছিলেন সৈয়দ নজরুল ইসলাম। রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান ও মো. আবদুল হামিদ এই জেলার কৃতি সন্তান। আসলে কিশোরগঞ্জ সবসময় রাষ্ট্রের প্রধান হয়ে বাংলাদেশ পরিচালনা করে আসছে।

উল্লেখ্য, প্রায় ২৫ বছর পর কিশোরগঞ্জের মিঠামইনে সফরে আসেন প্রধানমন্ত্রী। ১৯৯৮ সালের ৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রথমবার মিঠামইন সফর করেন। ওই সময় মো. আবদুল হামিদ কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য ও ডেপুটি স্পিকার ছিলেন।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন