একাত্তরের এই দিনে গঠিত হয়েছিল স্বাধীন দেশের প্রথম সরকার

224
শেয়ার করতে ক্লিক করুন

আজ ১০ এপ্রিল। একাত্তরের এই দিনে মুজিবনগর সরকার বা স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সরকার গঠিত হয়। আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র পাঠ করেন গণপরিষদ সদস্য অধ্যাপক এম ইউসুফ আলী। এদিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতা ঘোষণাও অনুমোদন করা হয়।

২৫ মার্চ কালরাতে পাকিস্তানি হানাদারদের নির্বিচারে গণহত্যা ও ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার পর বাংলাদেশ একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

স্বাধীনতা ঘোষণার মাত্র ১৫ দিনের মাথায় গঠন হয় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের প্রথম সরকার। যা মুজিবনগর সরকার নামে পরিচিত। মুক্তিবাহিনীকে সংগঠিত করে পাকিস্তানি হানাদারদের বিরুদ্ধে সশস্ত্র যুদ্ধ পরিচালনা ও স্বাধীন বাংলাদেশের পক্ষে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সমর্থন আদায় করে এ সরকার।

১০ এপ্রিল পাকিস্তানের নির্বাচিত জাতীয় এবং প্রাদেশিক পরিষদ সদস্যরা ভারতের পশ্চিমবঙ্গের একটি গোপন স্থানে মিলিত হয়ে প্রবাসী সরকার গঠন করেন। এতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রাষ্ট্রপতি এবং সৈয়দ নজরুল ইসলামকে উপ-রাষ্ট্রপতি বা অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত করা হয়। সৈয়দ নজরুল ইসলাম পরে তাজউদ্দীন আহমদকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করেন।

মন্ত্রিসভার অন্য সদস্যরা হলেন, এম মনসুর আলী এবং এ এইচ এম কামারুজ্জামান। বিশ্বাসঘাতক খন্দকার মোশতাক আহমদও মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন।

১০ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীন ও সার্বভৌম গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের ঘোষণাপত্র পাঠ করেন অধ্যাপক এম ইউসুফ আলী। মুক্তিযুদ্ধ চলার সময় মুজিবনগর সরকার পরিচালনার অন্তর্বর্তীকালীন সংবিধান হিসেবে কার্যকর ছিল বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র নামের এই দলিল।

১০ এপ্রিল সরকার গঠনের পর ১১ এপ্রিল স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে তাজউদ্দীন আহমদ একটি বেতার ভাষণ দেন। এ ভাষণে তিনি দেশব্যাপী প্রতিরোধ যুদ্ধের বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরেন।

১৭ এপ্রিল মেহেরপুর জেলার বৈদ্যনাথতলায় শপথ গ্রহণ করে এই সরকার। মুজিবনগর সরকারের প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ বৈদ্যনাথতলার নামকরণ করেন মুজিবনগর।

শেয়ার করতে ক্লিক করুন